সাধারণ ধর্মঘটের সমর্থনে বারাসাতে বামদলগুলোর ‘মহামিছিল’

Barasat

২ জানুয়ারি বারাসাত, দেশব্যাপী ৮-৯ জানুয়ারি ধর্মঘটের সমর্থনে সি পি আই (এম এল) লিবারেশন, সি পি আই (এম), সি পি আই, ফরোয়ার্ড ব্লক ও আর এস পি-র আহ্বানে ‘মহামিছিল’ বারাসাত হেলাবটতলা থেকে শুরু হয়ে কয়েক সহস্র মানুষের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে চাঁপাডালিতে গিয়ে শেষ হয়। নেতৃত্বে ছিলেন রাজ্য নেতৃবৃন্দ। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য রাখেন—পলাশ দাস (সি পি এম), নরেন চ্যাটার্জী (ফরোয়ার্ড ব্লক), স্বপন ব্যানর্জী (সি পি আই), সুকুমার ঘোষ (আর এস পি), পার্থঘোষ (সি পি আই এম এল) রাজ্য সম্পাদক এবং বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু। সভার সঞ্চালক ছিলেন তরিৎবরণ তোপদার।

ঐদিন উত্তর ২৪ পরগণায় আরও কয়েকটি প্রচার সভা অনুষ্ঠিত হল—সি পি আই (এম এল), এ আই সি সি টি ইউ সহ অন্যান্য গণসংগঠন সমূহের হালিশহর চৌমাথার সভায় বক্তা ছিলেন—প্রশান্ত সাহা, উত্তম দাস, নারায়ণ রায়, শিবশঙ্কর গুহরায়, সুব্রত সেনগুপ্ত এবং সভাপতি ছিলেন সাগর চ্যাটার্জী; অশোকনগর কল্যাণগড়ে এ আই সি সি টি ইউ সহ অন্যান্য ট্রেড ইউনিয়নের যৌথসভায় বক্তা ছিলেন অজয় বসাক ও অন্যান্যরা; ভাটাপাড়া বি সি এম এফ সহ ২০ ইউনিয়নের কনভেনশন বক্তা ছিলেন শম্ভুনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, সভাপতি নারায়ণ দে; বনগাঁয় সি পি আই (এম এল) লিবারেশন, সি পি আই (এম) এবং সি পি আই-এর যৌথসভা বক্তা ছিলেন সুজিত ঘোষ সি পি আই (এম এল)। সাধারণ ধর্মঘটের সমর্থনে যৌথসভায় বসিরহাট থানার সামনে বক্তব্য রাখেন সিটু-র পক্ষে সুভাষ মুখার্জী এবং এ আই সি সি টি ইউ-র পক্ষে দেবব্রত বিশ্বাস। উৎসাহ উদ্দীপনার সাথে প্রচার চলছে। ধর্মঘটের প্রচারের জন্য সি পি আই (এম এল) লিবারেশন, এ আই সি সি টি ইউ, বি সি এম এফ, এ আই পি ডব্লিউ এ, রন্ধনকর্মী ইউনিয়ন, এ আই কে এম, এ আই এ আর এল এ, এ আই এস এ, নির্মান শ্রমিক ইউনিয়ন এবং আর ওয়াই এ-র পৃথক পৃথক পোস্টার এলাকায় ছেয়ে গেছে।

‘তৃণমূলে’র দৌরাত্ম্যকে উপেক্ষা করে কামারহাটি, বেলঘরিয়া, বারাসাত, মধ্যমগ্রাম, বসিরহাট, বনগাঁ, গাইঘাটা, অশোকনগর, খড়দহ, ব্যারাকপুর, জগদ্দল, কাঁকিনাড়া, নৈহাটি, বীজপুর, শিবদাসপুর প্রভৃতি অঞ্চলে একাধিক সভা, মিছিল ও কনভেনশন স্বাধীনভাবে বা যৌথভাবে অনুষ্ঠিত হয়ে চলেছে। ইতিমধ্যেই জুটমিল, ইটভাটা, মিড-ডে-মিল, স্কিমকর্মী, পরিবহন কর্মীরা নিজ নিজ সংস্থা ও সরকারের কাছে স্ট্রাইক নোটিশ পাঠিয়ে দিয়েছেন। ধর্মঘটের দিন যত এগিয়ে আসছে, প্রচার ততো বাড়ছে।

খণ্ড-26
সংখ্যা-1
03-01-2019