হস্টেলে গুলি চালনায় আহত ছাত্রর সঙ্গে দেখা করেন সিপিআই এমএল) নেতৃবৃন্দ

CPIML Leaders

আরার কল্যাণ হস্টেলে দুষ্কৃতিদের গুলিতে গুরুতর রূপে আহত হয় দলিত ছাত্র যুগেশ রাম। সিপিআই(এমএল) বিধায়ক সত্যদেব রাম, বিহার রাজ্য কমিটির সদস্য উমেশ সিং ও নবীন কুমার এবং এআইএসএ নেতা নিশান্ত কুমার ও রামজি যাদব পাটনা মেডিক্যাল কলেজে গিয়ে তাকে দেখেন ও তার স্বাস্থ্যের খোঁজ নেন।

পরে সত্যদেব রাম বলেন, রাজ্যে বিজেপি-জেডিইউ শাসনাধীনে দলিত ছাত্রদের উপর আক্রমণের ঘটনা বেড়ে গেছে। কোনকিছুই তাদের কোন ক্ষতি করতে পারবে না, একথা জেনে দুষ্কৃতিদের সাহস গগনচুম্বী হয়েছে। তাদের স্পর্ধা এতটাই বেড়ে গেছে যে, হস্টেলে ঢুকে প্রকাশ্য দিবালোকে ছাত্রদের ওপর গুলি চালাতেও ওরা একটুও ভয় পাচ্ছে না। রাজ্যে অপরাধের সংখ্যা বেড়েই চলছে এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পুরোপুরি ভেঙ্গে পড়েছে। নীতীশ সরকার অপরাধীদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে বলে দেখা যাচ্ছে। যে ডাক্তাররা যুগেশের চিকিৎসা করছেন, সিপিআই(এমএল) নেতৃবৃন্দ তাঁদের সঙ্গেও দেখা করেন এবং সে কেমন আরোগ্য লাভ করছে তার খোঁজখবর নেন। ডাক্তাররা জানান, যুগেশের শিরদাঁড়ায় একটা বুলেট আটকে রয়েছে, এই অবস্থায় অপারেশন করলে কোমর থেকে নীচ পর্যন্ত পঙ্গু হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই শল্য চিকিৎসা বিভাগ থেকে ওকে এখন অস্থি বিভাগে বদলি করা হয়েছে। সিপিআই(এমএল) নেতৃবৃন্দ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এবং যুগেশের চিকিৎসায় দায়িত্বশীল ডাক্তারের সঙ্গে দেখা করে অনুরোধ জানান—যুগেশের সার্বিক আরোগ্যের চেষ্টায় যেন কোন ত্রুটি এবং আত্মসন্তুষ্টি বা অবহেলার কোন অবকাশ না থাকে।

students

এআইএসএ-আরওয়াইএ-ভীম সেনার যৌথ প্রতিবাদ

আম্বেদকর হস্টেলে যুগেশ রামের উপর আক্রমণের প্রতিবাদে এআইএসএ, আরওয়াইএ এবং ভীম সেনা ২৬ ডিসেম্বর ভোজপুরে এক যৌথ প্রতিরোধ মিছিল সংগঠিত করে। তারা দাবি জানায়—হস্টেলে এবং যুগেশের উপর আক্রমণ চালানোর জন্য যারা দায়ী তাদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে; যুগেশ যাতে সবচেয়ে ভালো চিকিৎসা পায় তা সুনিশ্চিত করতে হবে এবং তার চিকিৎসা ব্যয়ের ভার সরকারকেই বহন করতে হবে; হস্টেলে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে পুলিশ নিয়োগ করতে হবে; যে দুষ্কৃতীরা আক্রমণ চালিয়েছে তাদের অস্ত্রের লাইসেন্স বাজেয়াপ্ত করতে হবে এবং ঐ আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

এর আগে অপরাধী ভারত যাদব ও তার দলবলকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবিতে এআইএসএ ২৪ ডিসেম্বর রাস্তা অবরোধ সংগঠিত করে। এক তথ্যানুসন্ধানী দল হস্টেল পরিদর্শন করে, যে দলের সদস্যরা ছিলেন সিপিআই(এমএল) নেতা রাজ যাদব এবং বিজয় সিং, কানহাইয়া কুমার ও হরিনাথ মাস্টার।

খণ্ড-26
সংখ্যা-3
17-01-2019