অরুণাভ লাহিড়ীর জীবনাবসান
Arunav Lahiri

বিশিষ্ট রবীন্দ্র গবেষক, মঞ্চ পরিচালক এবং সমাজসেবী অরুণাভ লাহিড়ী ২৩ এপ্রিল, ২০২১, শুক্রবার তাঁর অগণিত অনুরাগী, ভক্তবৃন্দ ও পরিবারের সদস্য ও পরিজনদের ছেড়ে পরলোকে চলে গেলেন। তিনি আমৃত্যু পারিপার্শ্বিক সকল মানুষকেই স্নেহ, ভালোবাসা, শ্রদ্ধার আলিঙ্গনে কাছে টেনে নিয়েছিলেন। তাঁর জীবনচলার এই অনন্য ছবি সকল মননকেই উদ্ভাসিত করে তুলেছিল। মন যেন বারবার বলে ওঠে, “দেখি নাই কভু দেখি নাই এমন তরণী বাওয়া”।

তিনি ৫০টির বেশি মঞ্চানুষ্ঠান প্রযোজনা ও পরিচালনা করেছিলেন। ‘দুই রাজা ভিন্ন আড়াল’ এক নবধারার প্রযোজনা। আবৃত্তি কোলাজ, ‘কলকাতা স্মৃতি ও সময়’ এক অভুতপূর্ব ভাবনা যা সাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় দ্বারা সমাদৃত হয়েছিল। ‘দেশ ও মানুষ’ নৃত্য গীত সহযোগে একটি মঞ্চ উপস্থাপনা যা সংঘবদ্ধ সংগ্রাম ও সম্প্রীতির ভাবনায় উজ্জ্বল। তিনি রবীন্দ্রনাথের চিত্রাঙ্গদা নাটক ও নৃত্যনাট্য একই মঞ্চে অভিনব আঙ্গিকে পরিবেশনা করেছিলেন। কবির গান, কবিতা ও প্রবন্ধ  আজীবন তাঁর নিবিড় চর্চার বিষয় ছিল। রবীন্দ্রনৃত্য সম্পর্কিত ভাবনায় তিনি নতুন দিক উন্মোচিত করেছেন। এই বিষয়ের ওপর তাঁর কাজ বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য। রবীন্দ্রনৃত্য সম্পর্কিত তাঁর একটি ভাষণ সর্বজনশ্রদ্ধেয় শ্রী শান্তিদেব ঘোষ বিশেষ প্রশংসা করেছিলেন। তাঁর বই ‘নৃত্য পথিকৃৎ রবীন্দ্রনাথ’ গুণিজন দ্বারা সমাদৃত হয়েছে। তাঁর অন্যান্য উল্লেখযোগ্য বই হল, ‘রুটি ও পৃথিবী’, ‘ আদি মধ্যযুগে বাংলাসমাজ’, ‘নমি চরণে’ ইত্যাদি। শিশুদের জন্যও প্রচুর লেখালেখি করেছেন। ‘শিশুর পৃথিবী’ ও ‘নদীর নাম ঘুঙুর’ শিশুদের ওপর তাঁর দুটি জনপ্রিয় ছড়ার বই। এছাড়া তাঁর সৃষ্টির তালিকায় বহু শ্রুতিনাটক ও গীতিনাটকের পান্ডুলিপি রয়েছে। উল্লেখযোগ্য দুটি হল ‘জন্মোৎসব’ এবং ‘সামাজিক বর্ণমালা’।  

রবীন্দ্রনাথের পূজা পর্বের ৬১৭টি গানের প্রেক্ষিত নিয়ে টীকা ও দর্শন সমৃদ্ধ একটি গ্রন্থ যন্ত্রস্থ আছে যা শীঘ্রই প্রকাশিত হবে। আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ যেটি প্রকাশনার অপেক্ষায় সেটি হল ‘ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামে বিপ্লবী আন্দোলন ও রবীন্দ্রনাথ’। এইচএমভি এবং অন্যান্য সংস্থা থেকে তাঁর সম্পাদনায় অনেক ক্যাসেট ও সিডি প্রকাশিত হয়েছে।

অরুণাভ লাহিড়ীর জন্ম ১৯৫৩ সালে। তিনি আরএসপির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সুপন্ডিত তারাপদ লাহিড়ীর চতুর্থ সন্তান।

-- ভাস্বতী সান্যাল 

খণ্ড-28
সংখ্যা-20