ব্যারাকপুরে চটকল শ্রমিকদের আইন অমান্য ও গ্রেপ্তার বরণ

Barrackpore

 ৮-৯ জানুয়ারি উত্তর ২৪ পরগণার ২১টি জুটমিলের ১ লক্ষ শ্রমিক দেশব্যাপী হরতালে সামিল হয়েছেন। শ্রমিকরা সমস্ত প্ররোচনা, সন্ত্রাস, হামলা ও হুমকিকে মোকাবিলা করে চটকলে সর্বাত্মক ধর্মঘট পালন করেন।

ব্যারাকপুর, ২১ জানুয়ারি রাজ্য সরকার চটকলের মজুরি চুক্তি নিয়ে যে টাল বাহানা করছে তার বিরুদ্ধে শ্রমিকরা গর্জে ওঠেন। শ্রমিকরা ন্যূনতম ১৮০০০ টাকা মজুরি এবং ৬০০০টাকা পেনশন ও ঠিকা প্রথা বিলোপের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন।

এ আই সি সি টি ইউ অনুমোদিত বি সি এম এফ সহ চটকলের ২১টি ট্রেড ইউনিয়ন সংযুক্তভাবে আইন অমান্যের কর্মসূচি নেয়। বিশাল পুলিশ বাহিনী রাস্তার মাঝখানে শক্তপোক্ত ব্যারিকেড করে দেয়। কিন্তু সংগ্রামী মেজাজে শ্রমিকরা পুলিশি ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে যায়। এরপর পুলিশ আন্দোলনকারিদের গ্রেপ্তার করে টিটাগড় থানায় নিয়ে যায় এবং কিছুক্ষণ বাদে সবাইকে ছেড়ে দেয়। আইন অমান্য আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন নবেন্দু দাশগুপ্ত, বি সি এম এফ; অনাদি সাহু ও গার্গী চ্যাটার্জী, বি সি এম ইউ; গরীব সাউ, এন জে ডাব্লিউ ইউ; লিয়াকত আলি, এন এফ সি ইউ। এছাড়াও বি সি এম এফ থেকে উপস্থিত ছিলেন মহ: জহিম, কৃষ্ণা বেহেরা, শম্ভুনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং নারায়ণ দে প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

খণ্ড-26
সংখ্যা-4
24-01-2019